ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার কাকদ্বীপের হারু পয়েন্ট কোষ্টাল থানা এলাকার প্রসাদপুর পূর্ব পাড়ায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত গৃহবধুর নাম শিউলি গিরি পাঁজা বয়স(২০) , এলাকাবাসীদের অভিযোগ মৃত গৃহবধূকে তার শশুর শাশুড়ি দিনের পর দিন শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করত। এমনকি ওই গৃহবধূকে শ্বশুর বাড়ির লোকজন ঠিক ভাবে খেতেও দিতনা। এরকম পরিস্থিততে গত দিন অর্থাৎ রবিবার সকাল দশটা নাগাদ ওই গৃহবধুর সঙ্গে তার শাশুড়ি উর্মিলা পাঁজার প্রচন্ড ঝগড়াঝাঁটি হয়,এলাকাবাসীদের অভিযোগ ওই সময় গৃহবধুর শাশুড়ি গৃহবধকে মারধরও করে, তারপরেই গত দিন সকাল ১১ টা নাগাদ বাড়ির দোতলার ঘরে গৃহবধূকে জ্বলন্ত অবস্থায় দেখে প্রতিবেশীরা তারপর প্রতিবেশীরা ঐ গৃহবধূকে জ্বলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে কাকদ্বীপ মহাকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায় তারপরেই আশঙ্কা জনক অবস্থায় ওই গৃহবোধকে স্থানান্তরিত করা হয় ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালে এবং সেখানে গৃহবধুর মৃত্যু হয়। এলাকাবাসীদের অভিযোগ গৃহবধুর শাশুড়ি সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা গৃহবধূকে পরিকল্পিতভাবে পুড়িয়ে মেরেছে. পরিবার সূত্রে জানা যায় ওই গৃহবধুর দু বছরের বিবাহিত জীবন,গৃহবধুর স্বামী গুরুপদ পাঁজা কর্মসূত্রে ভিন রাজ্যে থাকেন।
ঘটনাস্থলে হারু পয়েন্ট কোস্টাল থানার পুলিশ এসে তদন্ত করছে সেই সঙ্গে মৃত গৃহবধুর শশুর এবং শাশুড়িকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে যায় হারু পয়েন্ট কোষ্টাল থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × 2 =