আতশবাজি পোড়ানো নিয়ে গন্ডোগোলের জেরে এক পরিবারের সদস্যদের বেধরক মারধরের অভিযোগ কোন্নগরে।কোন্নগর পুরসভার সতেরো নম্বর ওয়ার্ডে রায় পরিবারের ছোটোরা আতশবাজি পোড়াচ্ছিল।একটি রকেট ছুটে স্থানীয় একটি পুজো মন্ডপে চলে যায়।সেই পুজো কমিটির সদস্যরা ছুটে এসে যারা বাজি পোড়াচ্ছিল তাদের উপর চড়াও হয়।পরিবারের বড়রা বাধা দিতে গেলে তাদের মারধোর করা হয়।আহত হন উষা রায়(৫৬) তার স্বামী বাবান রায়(৬০) তাদের মেয়ে অনুপা তেওয়ারী।ঘটনায় কোন্নগর পুরসভার তৃনমূল চেয়ারম্যান স্বপন দাসের ঘনিষ্ঠের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।কয়েকদিন আগে চেয়ারম্যানের ভাই ও ভাইপোকে মারধোরের অভিযোগ ওঠে কোন্নগর শহর তৃনমূল সভাপতি তন্ময় দেবের লোকেজনের বিরুদ্ধে।দুর্গাপুজোর দশমীর দিন উত্তরপাড়ার মাখলায় এক যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগ ওঠে ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
উত্তরপাড়ার বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ কোন্নগর উত্তরপাড়া অঞ্চলে হামেশাই এই ধরনের ঘটনা ঘটছে আর সবেতেই তৃনমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠছে।
কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস এ বিষয়ে কিছু বলতে না চাইলেও সতেরো নম্বর ওয়ার্ডের তৃনমূল কাউন্সিলর বিশ্বরূপ চক্রবর্তী বলেন,দলের লোক নিয়ে কিছু বলব না,তবে খুব খারাপ ঘটনা ঘটেছে আর যারা মহিলাকে এভাবে মারধোর করে তারা তৃনমূল হতে পারে না।দেখি দল কি করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × two =