বাঁশ, লোহার রড দিয়ে তাঁকে মারধর করা হচ্ছিল। এলাকাবাসী ওই যুবকের কান্নার শব্দ শুনে তাঁকে উদ্ধার করে বাইরে নিয়ে আসেন। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে ইংলিশবাজার থানার গোপালপুর কাঁচা কালী মন্দির লাগুয়া এলাকায়। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। কাঁচা কালী মন্দির সংলগ্ন বেআইনিভাবে চলা ওই হোমটি তুলে দেওয়ার দাবি জানিয়ে ক্ষোভ দেখান এলাকাবাসীরা। বৃহস্পতিবার সন্ধের দিকে ঘটনাটি ঘটে। আক্রান্ত যুবকের নাম সুকু পাল। পুরাতন মালদা থানার মঙ্গলবাড়ি এলাকায় বাড়ি। দিন আটেক ধরে তিনি নেশামুক্তি কেন্দ্রে রয়েছেন। অভিযোগ, দু’‌দিন ধরে তাঁকে কিছু খেতে দেওয়া হয় নি। এমনকি রাতে এবং দিনে ঘুমতেও দেওয়া হয় নি। উপরন্তু অকারণে চলে মারধর। এদিন হোমে তারস্বরে ডিজে চালিয়ে তাঁকে মারধর করা হচ্ছিল। যাতে তাঁর কান্নার শব্দ বাইরের কেউ শুনতে না পায়। এলাকাবাসীদের মধ্যে সামন্ত ঘোষ অভিযোগ করে বলেন, ‘‌এই হোমে বেআইনি সব কাজকর্ম চলে। এর আগেও মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এমনকি মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে। পরে রাতের অন্ধকারে দেহ পাচার করা হয়েছে। আমরা এই হোম এখান থেকে তুলে দিতে চাই।’‌ যদিও এই ঘটনায় হোম কর্তৃপক্ষ মুখ খুলতে চায় নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

fifteen − seven =