এক ডাম্পার চালক-কে মেরে চোখ রক্তাক্ত করে দেওয়ার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। ক্ষুব্দ হয়ে সকাল ১১ টা থেকে বোলপুর-সিউড়ি রাস্তায় পাড়ুইয়ে অবরোধ করে চালক ও স্থানীয় বাসিন্দারা৷ কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডাম্পার চালক শেখ নূর আলমের চিকিৎসা চলছে৷

বীরভূম জেলায় ডাম্পার, লরি, ট্রাক দাঁড় করিয়ে পুলিশের টাকা তোলার অভিযোগ দীর্ঘ দিনের৷ পাড়ুই থানার রসাইপুর গ্রামের বাসিন্দা শেখ নূর আলম পেশায় ডাম্পার চালক। ৪ ডিসেম্বর রাতে ইলামবাজার কৃষক বাজারের কাছে পুলিশ তাকে দাঁড় করায়৷ অভিযোগ, পুলিশ টাকা চায়, টাকা দেওয়ার পরেও বচসা থেকে ওই চালককে মারধর করে ইলামবাজার থানার এক পুলিশ অফিসার৷ চোখে আঘাত লেগে গুরুত্বর জখম হন ওই ডাম্পার চালক৷ রক্তাক্ত অবস্থায় প্রথমে তাকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতাল, পরে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশি জুলুমের বিরুদ্ধে এদিন সকাল ১১ থেকে প্রায় ৩ ঘন্টা বোলপুর-সিউড়ি রোডের পাড়ুইয়ে অবরোধ শুরু করে ডাম্পার চালক ও স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের দাবি, ওই ডাম্পার চালকের চিকিৎসার সমস্ত খরচ বহন করতে হবে ও অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে৷ আহত যুবকের ছবি পোস্টার বানিয়ে চলে পথ অবরোধ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − 10 =