ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার গোবরডাঙ্গা থানার অন্তর্গত গোবরডাঙ্গা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের সমাদ্দার পারা এলাকায়। সূত্র মারফত জানাজায় মৃত বৃদ্ধার নাম পুষ্প আচার্য বয়স ৬৫ বছর। বাড়িতে তিনি একাই থাকতেন গত দুইদিন ধরে ওই বৃদ্ধাকে দেখতে পারছিলেন না এলাকার মানুষ। সোমবার সন্ধ্যার সময় পুষ্প আচার্যকে ডাকতে জান প্রতিবেশীরা ঠিক তখনই ঘরে ঢুকে দেখতে পায় খাটের উপর চৈতন্য অবস্থায় পড়ে আছে বৃদ্ধা পুষ্প আচার্য। এবং ভাঙ্গা রয়েছে ঘরের পিছনের দরজা। তড়িঘড়ি স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেয় গোবরডাঙ্গা থানায়, গোবরডাঙ্গা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী খবর পাওয়া মাত্রই তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে। তবে কি কারণের জন্য ঘটল এই বিদ্যার মৃত্যু তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি ঘরের মধ্যে লন্ডভন্ড অবস্থায় রয়েছে যে কারণে জন্য এক কথায় বলায় যেতে পারে এই বিদ্যাকে হত্যা করা হয়েছে নৃশংসভাবে। স্থানীয়দের দাবি অনুযায়ী তদন্ত শুরু করেছে গোবরডাঙ্গা থানার পুলিশ।মঙ্গলবার মৃতদেহটি পাঠানো হবে ময়নতন্ত্রের জন্য বারাসাত হসপিটালে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পরেই বোঝা যাবে ঠিক কী কারণে ঘটলো এই বৃদ্ধার মৃত্যু। এমনটাই জানা গিয়েছে গোবরডাঙ্গা থানার পুলিশ সূত্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 + 13 =