বলাগড়ের গুপ্তিপাড়ার সুলতান পুর ভড়পাড়ার বাসিন্দা জর্নাদন সরকার(৬৫) গীতা সরকার(৬০) ও তাদের মেয়ে প্রতিমা সরকার(৩০)।প্রতিমা স্থানীয় মিরডাঙা প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষিকা।স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর,গতকাল পৌষ সংক্রান্তির দিন জনার্দনের গুরু বোন এক মহিলাকে নিয়ে তাদের বাড়িতে আসেন।রাতেও ছিলেন তারা। ওই এলাকায় আরো কয়েকজ গুরু ভাই আছেন মহিলার।তাদের বাড়িতে দেখা করেন ওই দুই জন।
আজ সকাল থেকে তাদের আর পাত্তা পাওয়া যায়নি।
প্রতিবেশিরা সকালে তাদের বাড়িতে গিয়ে দেখতে পায় দরজা হাট করে খোলা।তিনজন অচৈতন্য অবস্থায় পরে রয়েছেন।স্থানীয় চিকিৎসককে ডেকে দেখানোর পর পুলিশে খবর দেন প্রতিবেশিরা।পুলিশ গিয়ে তিনজনকে কালনা হাসপাতালে ভর্তি করে।অচৈতন্য থাকায় পুলিশকে কিছু জানাতে পারেননি জনার্দন সরকারের পরিবার।জানা যায়নি বাড়ি থেকে কিছু খোয়া গেছে কিনা।পুলিশের অনুমান ক্লোরোফর্ম স্প্রে করে বা মাদক জাতীয় কিছু খাইয়ে দেওয়ার ফলে অচৈতন্য হয়ে পরেন তিনজন।
গুপ্তিপাড়া-১ পঞ্চায়েতের উপ প্রধান বিশ্বজিৎ নাগ বলেন,প্রতিদিন সকাল সকাল ওঠেন সরকার বাড়ির সদস্যরা।আজ নটা বেজে গেলেও কোনো সারা শব্দ না পেয়ে প্রতিবেশিরা গিয়ে ডাকা ডাকি করেন।দরজা খোলা ছিল।ভিতরে ঢুকে দেখতে পান তিনজনই অচৈতন্য হয়ে পরে রয়েছেন।গতকাল তাদের বাড়িতে গুরু বোন এসেছিলেন।তাই সন্দেহ তার দিকেই।পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 4 =