দলীয় কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকে সিপিএম কর্মীদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনায় আহত ৭, গুরুতর আহত দুই সিপিএম কর্মীতে ভর্তি করা হলো মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

রবিবার সন্ধ্যায় সিপিএমের কেতুয়া পার্টি অফিসে বসে নভেম্বর বিপ্লব কর্মসূচির প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বেশ কয়েকজন কর্মী। সেসময় এলাকার তৃণমূলের মিছিল থেকে পার্টি অফিসে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। পার্টি অফিস ভাঙচুরের পাশাপাশি বাঁশ লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় সিপিএম কর্মীদের। আহত অবস্থায় ৭ জনকে নিয়ে যাওয়া হয় কেশপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। গুরুতর আহত অবস্থায় ২ জনকে নিয়ে আসা হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। যদিও ঘটনায় তৃণমূল যোগের কথা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে শাসক শিবির। জেলা তৃণমূলের কো অর্ডিনেটর অজিত মাইতির দাবি, এই ঘটনার পিছনে দায়ী সিপিএমের গোষ্ঠীকোন্দল। গোটা ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগেই কেশপুরে সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরির জন্যই এমন ঘটনা বলে দাবি সিপিএম নেতৃত্বের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

nine − 5 =