তথ্য আদান প্রদান সহ ২০ দফা দাবিতে মালদা জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে অঙ্গনারী কর্মীদের শহর জুড়ে মিছিল বিক্ষোভ। মঙ্গলবার ব্যানার প্লাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে অঙ্গনওয়াড়ির ওর্কাররা ও হেল্পার ইউনিয়নের সদস্যরা। পাশাপাশি তারা মূলত মা ও শিশুদের নিয়ে জেলায় কাজ করে। সরকারী নির্দেশ ছিল বিভিন্ন তথ্য আদান প্রদানের জন্য অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন দেওয়া হবে। কিন্তুু এখনো পর্যন্ত কোন ফোন দেওয়া হয়নি। এমনকি ঘর ভাড়াও দেওয়া হয় না। ফলে নিদৃিষ্ট সেন্টারে কাজ করতে অসুবিধা হয়। ঘর ভাড়া বৃদ্ধি করতে হবে। কর্মীদের পোষাকের মান ও বেতন বৃদ্ধি করাতে হবে। বেতন বৃদ্ধি করে ২১হাজার টাকা করতে হবে। এমনকি তাদের দিয়ে বিভিন্ন কাজ করানো হলেও বেতন বৃদ্ধি করছেন না। ফলে এর আগেও প্রশাসনকে জানিয়েছিলেন তারা। কিন্তুু শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। অথচ কোন কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ। তাই বাধ্য হয়ে মঙ্গলবার আন্দোলনে নেমেছেন তারা।
এদিকে বিক্ষোভকারী কর্মীরা জানান, আমাদের বিভিন্ন জায়গায় মা ও শিশুদের নিয়ে কাজ করতে হয়। সেই তথ্য আদান প্রদানের জন্য অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সহ একাধীক সুবিধার কথা বললেও কোন ব্যবস্থা করেনি। শুধু প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। ঘর ভাড়া বৃদ্ধি না করলে তারা সেন্টর চালাতে অসুবিধার সন্মুখীন হচ্ছে। তাই এদিন বাধ্য হয়ে আমরা আন্দোলন শুরু করেছি। যদি কোন ব্যবস্থা না হয় তাহলে আগামী দিনে তারা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

two × 2 =