ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের। আহত দুজনের নাম সুকুমার নস্কর ও রাকেশ মুখোপাধ্যায়। তাঁদের পীঠ বুক, হাতের অনেকটা অংশই ঝলসে গিয়েছে। তাঁরা বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কালী পুজোর বিসর্জন উপলক্ষে বাজি ফাটানোর আয়োজন করা হয়েছিল বারুইপুরের চম্পাহাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের চীনের মোড়ের কাছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, সবাই নিজেদের মতোই বাজি ফাটাচ্ছিলেন। সুকুমার-রাকেশ সামনের সারিয়ে ছিলেন। তাঁরা সেল ফাটাচ্ছিলেন। যে জায়গায় তাঁরা সেল ফাটাচ্ছিলেন, তার পাশেই অনেকগুলো বাজি মজুত ছিল। আচমকাই আগুনের ফুলকি গিয়ে পড়ে সেই বাজিতে। কিন্তু হই হুল্লোড়ের মধ্যে তার দিকে আর কেউ খেয়াল করেননি। দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠে বাজি। সব এক সঙ্গে ফাটতে শুরু করে। সেই সময় পাশেই ছিলেন সুকুমার ও রাকেশ। তাঁদের গায়েও আগুন লেগে যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ঝলসে যায় শরীরের অর্ধেকাংশ। তড়িঘড়ি তাঁদের উদ্ধার করে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা করিয়ে কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয় ।কলকাতার হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁরা চিকিৎসাধীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × 4 =