গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার। খুন না আত্মহত্যা? মৃত্যু নিয়ে ধোঁয়াশা। বাপের বাড়ির লোকেদের দাবি খুন। অভিযোগ শশুর বাড়ির লোকেদের দিকে। পলাতক শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। সমগ্র ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার অন্তর্গত রশিদাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের রামশিমুল গ্রামে। আত্মঘাতী গৃহবধূর নাম শিউলি বিবি (২৪)। নয় বছর আগে তার বিয়ে হয় ওই গ্রামের বাসিন্দা নজরুল ইসলামের সঙ্গে। স্বামী ভিন রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করে। তাদের একটি সাত বছরের কন্যা সন্তান রয়েছে। জানা গেছে শিউলির সঙ্গে তার শ্বশুরবাড়ির লোকের প্রায় ঝামেলা লেগে থাকতো। শ্বশুর বাড়ির লোকেরা নানা কারণে তার উপর নির্যাতন করতো। এর আগে অনেক বার তার বাপের বাড়ির লোকেরা এবং তার স্বামী এই সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করলেও হয়নি। শনিবার দুপুর বারোটা নাগাদ শিউলি তার দিদি রুমা খাতুন কে ফোন করে জানাই তার সঙ্গে তার শাশুড়ির ঝামেলা হয়েছে। তার শাশুড়ি তার কাছ থেকে টাকা ধার নিয়েছিল। সেই টাকা ফেরত চাওয়া নিয়ে বিবাদের সূত্রপাত। এই নিয়ে তার শাশুড়ি তার উপর অত্যাচার করছিল। তার দিদি তার কাছে আসতে বললেও সে যেতে চাইনি। পরবর্তীতে তার দিদি এসে দেখে সে মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। গলায় ফাঁসির দাগ রয়েছে। এছাড়াও সারা গায়ে আঘাতের চিহ্ন। শ্বশুর বাড়ির লোকেরা কেউ বাড়িতে নেই। তাই তার দিদির অনুমান তার বোনকে খুন করা হয়েছে। তাদের অভিযোগ তার শশুর শাশুড়ির ননদ,দেওরের দিকে। গৃহবধুর দেহ উদ্ধার নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 × 4 =