টোটোর সাথে লরির ধাক্কা।জখম তিন কলেজ ছাত্রীসহ টোটো চালক।ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দুপুর দেড়টা নাগাদ মালদহের সামসী বাইপাস সংলগ্ন ধর্মকাটা(৮১ নং জাতীয় সড়ক)এলাকায়।জখম তিনজন কলেজ ছাত্রীর নাম রাবিনা খাতুন(১৯),সায়রা খাতুন(১৯) ও সারমিন খাতুন(২০)।এদের তিনজনের বাড়ি রতুয়া-২ ব্লকের শ্রীপুর এলাকায়।এরা তিনজনই সামসী কলেজের ছাত্রী।অপর জখম ব্যক্তির দুলাল শেখ(৪২)।তিনি টোটো চালক।তার বাড়ি সামসী লাগোয়া ভাগভাদো গ্রামে।আহত তিন কলেজ ছাত্রীর সামসী গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।টোটো চালকের অবস্থা গুরুতর থাকায় তাকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে,শনিবার দুপুরে সামসী কলেজ যাওয়ার জন্য শ্রীপুর বাস স্ট্যান্ডে একটি টোটোতে চাপে ওই তিন কলেজ ছাত্রী রাবিনা খাতুন(১৯),সায়রা খাতুন(১৯) ও সারমিন খাতুন(২০)।এরপর সামসী ধর্মকাটা এলাকায় রাস্তায় দাড়িয়ে থাকা একটি লরির পেছনে সজোরে ধাক্কা মারে টোটো।সঙ্গে সঙ্গে ওই তিন কলেজ ছাত্রী টোটো থেকে পড়ে যান।পড়ে যান টোটোর চালকও।দুর্ঘটনার ফলে টোটোটির কাঁচ ভেঙে দুমড়ে মুচড়ে যায়।এরপর ঘটনাস্থলে স্থানীয়রা ছুটে এসে জখম তিন কলেজ ছাত্রী ও টোটো চালক মোট চারজনকে চিকিৎসার জন্য সামসী গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান।জখম তিন কলেজ ছাত্রীর সামসী গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসা চললেও টোটো চালক দুলাল শেখের অবস্থা গুরুতর থাকায় তাকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

two × one =