স্বাস্থ্য পরিষেবা যেন অথই জলে তার প্রমান হাতে নাতে পাচ্ছে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে আসা রোগীরা। কারণ বিগত দশ দিন থেকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে বিকল এক্সরে মেশিন, শীতের সকালে সুদূর জল্পেশ থেকে কাপড়ে ঢেকে সদ্যজাতকে নিয়ে এক্সরে করাতে এসেছিলেন হামিদা খাতুন,তবে হাসপাতালের এক্সরে বিভাগে পৌঁছতেই শেষ হয়ে যায় কোলের শিশুর চিকিৎসার আসা। বন্ধ এক্সরে বিভাগ।জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সদর হাসপাতালে এক্সরে করাতে এসে হয়রানিতে নাজেহাল রোগীরা।একই চিত্র ডাইলোসিস বিভাগে। যদিও এই সমস্যার কথা মেনে নিয়ে এক্সরে বিভাগের কর্মী অভিজিৎ নন্দী জানান, গত সাত নভেম্বর থেকে মেশিন খারাপ,বর্তমানে যারা দুর দূরান্ত থেকে আসছেন তাদের নাম এবং ফোন নম্বর লিখে রাখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × two =