বিনা টিকিটে ট্রেনে যাতায়াত করা অনেকেরই অভ্যেস। মানথলি টিকিট বা অনলাইটে টিকিট কাটার সুবিধে থাকা সত্ত্বেও অনেকেই টিকিট ফাঁকি দেন। টিকিট চেকারের চোখ এড়িয়ে, ফাঁকি দিয়ে কীভাবে বিনা টিকিটে যাত্রা করা যায়, তা নিয়ে অনেকেই মাথা খাটিয়ে নিত্যদিন ফন্দি ফিকির বের করেন। নিত্যযাত্রীরা অনেকেই জানেন, কে টিকিট কেটে ট্রেনে উঠেছেন, আর কার বিনা টিকিটে যাত্রী করাটাই অভ্যেস। এবার রেলওয়ের যাত্রীদের বিশেষভাবে সতর্ক করল রেল।

পূর্ব রেলের তরফে জানানো হয়েছে যে, যাঁরা রোজ বিনা টিকিটে যাতায়াত করা অভ্যেস করে ফেলেছেন তাঁদের এবার সতর্ক হওয়ার সময় এসেছে। এবার হয়ত টিকিট চেক করতে হঠাৎ হঠাই ট্রেন রুটের মাঝপথে যে কোনও স্টেশন থেকেই উঠে পড়বে টিকিট চেকিং স্কোয়াড। সেটা কোনও জাংশন বা বড় স্টেশন নাও হলে পারে। যে কোনও সময়, যে কোনও রুটেই উঠে পড়তে পারে রেলের এই টিকিট চেকারের দল। তারপর বিনা টিকিটের যাত্রা করছেন এমন কেউ ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রেলের তরফে সতর্ক করে বলা হয়েছে, টিকিট না কাটলে যে কোনও দিন , সকলের সামনে বেইজ্জত হয়ে যেতে পারেন। পাশাপাশি আরও জানানো হয় যে এই স্কোয়াড সন্ধেয় হঠাৎ উঠে পড়তে পারেন তালদি থেকে বা আরামবাগ থেকে বা আর যে কোনও স্টেশন থেকে। এমন একটা লোকেশন থেকে হয়ত স্কোয়াড উঠে পড়বে, যেখান থেকে কেউ আশাই করেননি টিকিট চেকিং হবে। সেই সময় সকলের সামনে মাথা হেঁট হয়ে যেতে পারে বিনা টিকিটের যাত্রীদের। সেই সঙ্গে রেলওয়ের আর্জি, রেল-ভাড়া তো অন্যান্য যানের থেকে অনেক কম। ৫ থেকে ১০ টাকার টিকিট কেটে দীর্ঘ পথ যাত্রা করাই যায়। তাই সেই টিকিটও কাটতে চান না বহু মানুষ। এতে করে রেল যে বিশাল লাভ করবে এমন নয়, কিন্তু এটা একটু বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা যে, বাসের থেকে রেলের ভাড়া অনেক কম, তাছাড়াও রেল টিকিট কাটার অনেক ব্যবস্থা করেছে। তাই একটু সচেতন হয়ে টিকিট কেটে নেওয়াই ন্যায্য কাজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

13 + 5 =