ক দল ম্যাচ জিতে আইপিএলের (IPL 2024) প্লে-অফের দিকে আরও এক ধাপ এগিয়ে যেতে আগ্রহী। আরেক দলের প্লে-অফের দৌড়ে টিকে থাকার জন্য এই ম্যাচ জয়ই একমাত্র বিকল্প। প্যাট কামিন্স বনাম বিরাট কোহলি, ফাফ ডু প্লেসি বনাম ময়ঙ্ক মারকাণ্ডে আজ কিন্তু হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হওয়ার পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে।

দুই দল আইপিএলের মঞ্চে ২৪ বার মুখোমুখি হয়েছে। লড়াইয়ে সানরাইজার্স খানিকটা এগিয়ে। আরসিবির ১০ জয়ের তুলনায় ১৩টি ম্যাচ জিতেছে সানরাইজার্স। একটি ম্যাচ অমীমাংসিত শেষ হয়েছে।

ইতিমধ্যেই দুইবার আইপিএলের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে সানরাইজার্স। বোর্ডে বিরাট রান তুলে প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলে দেওয়াই নবাবের শহরের ফ্র্যাঞ্চাইজির পরিকল্পনা। আরসিবির বোলিং আক্রমণ নিয়েই এমনিই প্রশ্নচিহ্ন উঠছে। তাঁদের বোলিং আক্রমণের বিরুদ্ধে সানরাইজার্স নিজেদের বিধ্বংসী ব্যাটিং ফর্ম বজায় রাখবে বলেই আশা করছেন অনেকে।

অপরদিকে, আরসিবি নাগাড়ে ছয় ম্যাচ হারলেও, শেষ দুই ম্যাচে কিন্তু তারা লড়াই দেখিয়েছে। সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে ২৮৮ তাড়া করতে নেমে ২৬২ রান তুলেছিল আরসিবি। কেকেআরের বিরুদ্ধেও ২২৩ রানের টার্গেটের বিপক্ষে দুরন্ত ব্যাট করেও এক রানে হারেন বিরাট কোহলিরা। আরসিবির ভাগ্য কি তৃতীয়বারে তাদের সহায় হবে? আট ম্যাচের সাতটিতে হারা দল কি কামিন্সদের চমকে দিতে পারবেন? প্লে-অফের ক্ষীণ আশা বজায় রাখতে হলে কিন্তু জয় বাধ্যতামূলক। সেক্ষেত্রে দলের মহাতারকাদের অন্যতম গ্লেন ম্যাক্সওয়েল একাদশে ফিরলে দলের শক্তি বাড়বে বটে। তবে তিনি মানসিক ক্লান্তির কারণে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন। এই মরণ-বাঁচন ম্যাচে ম্যাক্সওয়েল ফেরেন কি না, সেটাও কিন্তু দেখার বিষয় হতে চলেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × 5 =