ধোপে টিকল না ইডির (ED) সওয়াল। সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) বড় স্বস্তি কেজরিওয়ালের (Arvind Kejriwal Bail)। ১ জুন-ভোটের শেষ দিন পর্যন্ত অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্তি। আর অন্তর্বর্তী জামিন পেয়েই স্পষ্ট ভাষায় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন স্বেচ্ছাচারিতা চলবে না।

দিল্লি ও পাঞ্জাবের ভোটের আগে বড়সড় স্বস্তি পেলেন দিল্লির মুখ্য়মন্ত্রী ও আম আদমি পার্টির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গ্রেফতারির ৫০ দিন পর আবগারি দুর্নীতি মামলায় ২৩ দিনের জন্য সুপ্রিম কোর্ট থেকে অন্তর্বর্তী জামিন পেলেন তিনি। আর এরপরই হুঙ্কার শোনা গেল তাঁর গলায়। এদিন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি বলেছিলাম না যে তাড়াতাড়ি ফিরব! চলে এসেছি। দেশের কোটি কোটি মানুষ আমার জন্য প্রার্থনা করেছেন। তাঁরা আশীর্বাদ করেছেন। আমাদের সবাইকে একসঙ্গে মিলে স্বেচ্ছাচারিতা থেকে দেশকে বাঁচাতে হবে। আমি সবরকমভাবে এই স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে লড়াই করছি। কিন্তু ১৪০ কোটি দেশবাসীকে স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।”

ভোটের মধ্য়ে কেজরিওয়ালের অন্তর্বর্তী জামিন আটকাতে মরিয়া চেষ্টা করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী এজেন্সি ED। ভোট প্রচার করাটা সাংবিধানিক-মৌলিক কিংবা আইনি অধিকার নয়। আজ অবধি কোনও রাজনীতিবিদকে ভোটের প্রচারের জন্য় অন্তর্বর্তী জামিন দেওয়া হয়নি। নতুন করে হলফনামা দায়ের করে, কেজরিওয়ালের জেল থেকে বাইরে আসা আটকাতে, আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েছিল ED। কিন্তু, তাদের এই যুক্তি খারিজ করে দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট ১ জুন পর্যন্ত অন্তবর্তী জামিন দিল অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে। অর্থাৎ ষষ্ঠ দফায় দিল্লির ৭টি আসনের জন্য়, কংগ্রেস ও আম আদমি পার্টির জোটের জন্য় ১৩ দিন প্রচারের সুযোগ পাবেন তিনি। দিল্লিতে বর্তমানে ক্ষমতায় রয়েছে আপ। পাঞ্জাবের ১৩টি আসনের জন্য় ভোট ১ জুন। অর্থাৎ তার জন্য়ও প্রচারের সুযোগ পাবেন আম আদমি পার্টির প্রধান। এখানেও ক্ষমতায় রয়েছে তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

14 − three =