৩ দিন ধরে নিঁখোজ তৃণমূল নেতাকে বান্ধবীর বাড়ি থেকে উদ্ধার করল পুলিশ৷ বারাসাতে বান্ধবীর বাড়িতে ছিলেন তিনি৷ ফোন কলের তালিকা দেখে পুলিশ হদিস পায় তার৷
প্রসঙ্গত, ২৮ অক্টোবর থেকে নানুর থানার সিদাই গ্রামে দলের বুথ সভাপতি বাবুলাল শেখ নিঁখোজ। পুলিশ কুকুর, ড্রোন এনে তল্লাশি চলছিল।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছিল, রোজকার মত বাড়ি থেকে মোটর বাইকে করে বেরিয়েছিলেন বাবুলাল শেখ৷ নতুনহাট যাওয়ার কথা ছিল৷ দিনভর না ফেরায় নানুর থানায় নিঁখোজের অভিযোগ দায়ের হয়েছিল৷ পুলিশ নিঁখোজ বুথ সভাপতি বাবুলাল শেখের বাইক ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছিল পুলিশ৷ মোবাইল ফোন খতিয়ে দেখে পুলিশ৷ তাও খোঁজ না মেলায় গ্রামবাসীরা বাসাপাড়া পুলিশ ক্যাম্পে বিক্ষোভ দেখায়৷ ক্ষিপ্ত গ্রামবাসীদের দাবি মত পুলিশ কুকুর এনে তল্লাশি চালানো হয়৷ এদিন সকাল থেকে গ্রামবাসীদের সঙ্গে নিয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী ধান জমি থেকে শুরু করে অজয় নদের তীরে ড্রোন ক্যামেরা নিয়ে জোর তল্লাশি চালায়।

এদিন, সন্ধ্যায় বারাসাতে বান্ধবীর বাড়ি থেকে নিঁখোজ তৃণমূল নেতাকে উদ্ধার করে নানুর থানার পুলিশ৷ ফোন কলের সূত্র ধরে পুলিশ জানতে পারে দীর্ঘদিন ধরে বারাসাতের এক বান্ধবীর সঙ্গে কথা বলতেন বাবুলাল৷ সিনেমার কায়দায় তারই বাড়িতে চলে যায় সে। নানুর থানার পুলিশের একটি টিম বারাসাত যায়৷ সেখান থেকেই নিঁখোজ নেতাকে নানুরে নিয়ে আসা হয়৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × 1 =