গোপনে নাবালিকার বিয়ে হচ্ছে।খবর পেয়ে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করলো মহিষাদলের বিডিও যোগেশ চন্দ্র মন্ডল। বিয়ে অনুষ্ঠান থেকে পাত্র ও নাবালিকা পাত্রী, পাত্রের মামা, মামি, পুরহিত, পাত্রের বন্ধু সহ কয়েকজনকে মহিষাদল থানায় নিয়ে এসে আটক করা হয়। মহিষাদল থানার নাটশাল- ১ গ্রামপঞ্চায়েতের চাঁদপাত্র গ্রামের সন্দীপচাঁদ পাত্রের সাথে সাউথ ২৪ পরগনা জেলার কাকদ্বীপের প্রভাস দাসের নাবালিকা মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়। নাবালিকার সাথে বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাওয়ার ভয়ে মহিষাদল থানার গোপালপুরে ছেলের মামা বাড়িতে গুটি কয়েক লোকজন নিয়ে মামা বাড়ির হরি মন্দিরের সামনে পুরোহিতের উপস্থিতিতে বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু হয়। হোম যজ্ঞ শুরু হয়েছে। এমন সময় মহিষাদলের বিডিও যোগেশ চন্দ্র মন্ডল, জয়েন্ট বিডিও বনমালী হালদার সহ কয়েকজন হাজির হয়। বিডিও মেয়ের জন্মের কাগজ পত্র দেখতে চায়। কাগজপত্র দেখে জানতে পারা যায় মেয়েটি নাবালিকা ( ০৪/০৮/০৫ জন্ম তারিখ)। তার পর নাবালিকা পাত্রী, পাত্র, পাত্রের মামা, মামি, পুরোহিত ও পাত্রে বন্ধুদের মহিষাদল থানায় নিয়ে আসা হয়।
নাবালিকার বিয়ে রাজ্যের প্রথম সারিতে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা। সরকারিভাবে বাল্যবিবাহ বন্ধ করার প্রচার চালানোর পরেও গোপনে, সরকারের নজর এড়িয়ে এই ধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে।
দুই পক্ষের আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টির ভাবনা চিন্তা করা হবে বলে জানান মহিষাদলের বিডিও যোগেশ চন্দ্র মন্ডল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × 4 =