গত ৬ অক্টোবর সকালে শ্যামনগর বাসুদেবপুর থানার কাউগাছি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের রথতলা এলাকা থেকে এক ব্যক্তির রক্তাক্ত মৃতদেহ পুলিশ উদ্ধার করেছিল। মৃতের নাম রতন রায় ওরফে বাবু (৫০)। জগদ্দলের গোলঘর রবীন্দ্র পল্লীতে তাঁর বাড়ি। সুদের কারবারি রতনকে খুন করার অভিযোগ উঠেছিল। বাসুদেবপুর থানার পুলিশ ওই ঘটনার তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতদের মধ্যে একজন দেবাশীষ দাস ওরফে লাল। এর বাড়ি নোয়াপাড়া থানার কে এন চ্যটার্জি রোডে। পাপ্পু আনসারি, মহঃ আরমান, হিনজামামুল হক(সাহেব)এই তিনজনের বাড়ি ভাটপাড়া থানার কাঁকিনাড়ার মানিকপীরে। ধৃতরা সুদে টাকা ধার নিয়েছিল রতনের কাছ থেকে। টাকা চাওয়াতেই এই ঘটনা দাবি পুলিশের।তাদের প্রাথমিক অনুমান শ্যামনগরের প্রবোধ গেস্ট হাউসে রতন রায়কে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়।তারপর তার দেহ অন্যত্র কাউগাছি এলাকায় ফেলে দিয়ে আসে দুষ্কৃতিরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three + ten =